LearnArticle
EN লেখক লগইন লেখক হোন
          অনলাইন প্রকাশক
www.learnarticle.com
    সার্বিক সহযোগিতায়

কিভাবে কম্পিউটারের স্ক্রিনের তেজস্ক্রিয়তা থেকে চোখ বাচাঁবেন

আমরা বাস করি একটি তথ্য-প্রযুক্তির যুগে। আর এ যুগে আমাদের প্রায় সবসময়ই কম্পিউটার বা টিভি বা মোবাইলের সামনাসামনি হতে হয়। কিন্তু আমরা কি জানি যে এসব যন্ত্র কি ক্ষতি করছে আমাদের চোখের? কম্পিউটার, টিভি,মোবাইলের স্ক্রিন থেকে গামা রশ্নির ক্ষুদ্র বিকিরণ বের হয়, যেগুলো আমাদের চোখের জন্যে তো বটেই শরীরের জন্যেও ক্ষতিকর! এগুলো থেকে বেচেঁ না থাকলে প্রথমদিকে ড্রাই আই সিনড্রোম নামক রোগ হয়! পরে যেটা অন্ধত্বও সৃষ্টি করতে পারে! তো চলুন দেখে নিই কিভাবে এসবের ক্ষতি থেকে বাচাঁ যায়?

১)প্রথমেই আপনার কম্পিউটার, মোবাইল বা টিভি স্ক্রিন পরিষ্কার রাখতে হবে।যাতে করে এদের উপর ধুলাবালি না জমে এবং ময়লা না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। কারণ নরমাল স্ক্রিনের থেকে ধুলাবালি জমা স্ক্রিনে তাকিয়ে থাকতে চোখের বেশি কষ্ট হয়! চোখ খুব তাড়াতাড়ি ক্লান্ত হয়ে পড়ে, আর চোখের মাত্রাতিরিক্ত কাজ করতে হয় যা ক্ষতির কারণ!

২)কম্পিউটার, টিভির স্ক্রিন থেকে নিরাপদ দুরত্বে বসতে হবে সবসময়! কমপক্ষে একহাত দুরে তো অবশ্যই বসতে হবে! খুব কাছে থেকে দেখলে বা খুব দুরে থেকে দেখলে চোখের উপর বাজে প্রভাব পড়ে! চোখ সাময়িক অন্ধত্বের শিকার ও হতে পারে! তাই সাবধান থাকতে হবে যেনো খুব কাছে না বসি টিভি বা কম্পিউটারের!

৩)ব্লু লাইট ফিল্টার ইউস করতে হবে। অনলাইনে এমনকিছু সফটওয়্যার আছে যেগুলো কম্পিউটার এবং মোবাইলে ইনস্টল করে নিলে তাদের স্ক্রিনের রেডিয়েশন অনেকখানি কমিয়ে দেয়! ফলে চোখের আর ক্ষতি হয় না।
যেমন- Blue light filter ইত্যাদি।

৪)চশমা ব্যবহার করা। বাজারে এমন নরমাল চশমা পাওয়া যায় যেগুলা ব্যবহার করে খুব সহজেই এসব বাজে রেডিয়েশন ও চোখের ক্ষয়ক্ষতি এড়ানো যায়। নিকটস্থ চশমার দোকানে যোগাযোগ করে একটা ভালোমানের চশমা পরে নিলেই অমুল্য সম্পদ চোখ বাচাঁনো যায়!

৫)কাজের ফাকেঁ ব্রেক নেয়া। মনে করুন খুব গুরুত্বপুর্ণ কাজ করছেন। কাজের ফাকে ফাকে ব্রেক নেক। ১ঘন্টার পর চা খান, কফি খান, কোথা থেকে হেটে আসুন। কম্পিউটারের স্ক্রিনে ১০মিনিট তাকানোর পর ১০সেকেন্ড দুরে অন্য কোথাও তাকিয়ে থাকুন,এতে করে চোখের ক্ষতি হবে না। চোখ একঘেয়ে কাজ করে ক্লান্তও হবে না। ফলে আপনার কাজও হবে আবার চোখের ক্ষতিও হবে না।

চোখ মানুষের অমুল্য সম্পদ।এ সম্পদ বাচাঁনোর জন্যে সবারই সচেতন হওয়া উচিত। বিশ্বে প্রতি ৪০সেকেন্ডে একজন মানুষ ড্রাই আই সিনড্রোমের শিকার হচ্ছেন এসব যন্ত্রের অবাধ ব্যবহারের ফলে, চলুন চোখ থাকত সচেতন হই, দাতঁ থাকতে দাতেঁর মর্যাদা বুঝতে শিখি।


আরো পিডিএফ ই-বুক ফ্রি ডাউনলোড অথবা প্রিন্ট করুন

কান্ডারী হুশিয়ার কবিতা - কাজী নজরুল ইসলাম

তৈরি করে নিন মজার খাবার - ছোলার ডালের কচুরি রেসিপি

বাংলাদেশের সকল বিভাগের, জেলার, পৌরসভার এবং উপজেলার তথ্য

অনলাইনে লেখালেখি হতে পারে আপনার আয়ের সর্বোত্তম উপায়

বাংলা ভাষার বৃহত্তম প্রশ্ন উত্তর কমিউনিটি সাইট (প্রশ্নউত্তর)

জীবনানন্দ দাসের সকল কবিতা, গল্প, রচনাবলী এবং জীবনী

পটুয়াখালী জেলার উপজেলা, দর্শনীয় স্থান এবং পটুয়াখালীর আরও কিছু তথ্য

দুঃস্বপ্ন কেন দেখি এবং দুঃস্বপ্ন থেকে মুক্তির উপায়

© ২০১৬ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত LearnArticle.com