LearnArticle
ENGLISH শর্ত ও নিরাপত্তা লেখক লগইন লেখক হোন

স্বাস্থ্য ভালো রেখে সুস্থ স্বাভাবিক জীবন গড়ুন

আসমা আক্তার শান্তা
প্রকাশকাল (২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭)

স্বাস্থ্য সৃষ্টিকর্তার আশীর্বাদ স্বরূপ। এটা একজন লোককে সুখি জীবন যাপনে সমর্থ করে। এটা মানুষের সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ। স্বাস্থ্য ভাল রাখার জন্য শারীরিক ব্যায়াম অত্যাবশ্যক। একজন স্বাস্থ্যহীন ব্যক্তির নিকট খ্যাতি, সম্পদ, সম্মান সবকিছু অর্থহীন। যেহেতু স্বাস্থ্যই সবচেয়ে বড় সম্পদ, তাই স্বাস্থ্যের যত্ন না নিয়ে কারও ঐশ্বর্যের পেছনে দৌড়ানো উচিত নয়। একজন গরিব স্বাস্থ্যবান লোক একজন ধনী, স্বাস্থ্যহীন লোক অপেক্ষা অধিকতর সুখী। যার মন ও শরীর দুই - ই সুস্থ সে- ই স্বাস্থ্যবান। নিয়মিত ব্যায়াম শরীরকে সুস্থ রাখে এবং শরীর যদি সুস্থ থাকে তবে মনও সুস্থ থাকে। মন ভাল থাকলে যে কোনো কাজ ঠিকভাবে করা যায়। তাই স্বাস্থ্য ভাল রেখে কাজকর্ম স্বাভাবিকভাবে করার জন্য স্বাস্থ্যের ব্যাপারে যত্নশীল হতে হবে।


স্বাস্থ্য ভালো রেখে সুস্থ স্বাভাবিক জীবন গড়ুন

ছবি আসমা আক্তার শান্তা

স্বাস্থ্য

স্বাস্থ্য বলতে আমরা সাধারণভাবে শারীরিক ও মানসিক সুস্থতাকে বুঝে থাকি। একজন মানুষ যদি শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকে তাহলে সে ব্যক্তি স্বাস্থ্যবান। কিন্ত কোনো ব্যক্তি যদি দেখতে মোটা সোটা হয় অথচ সবসময় তার অসুখ বিসুখ লেগেই থাকে সে ব্যক্তিকে আমরা স্বাস্থ্যবান বলতে পারি না।

অন্যদিকে কোনো ব্যক্তি দেখতে চিকন কিন্তু ঠিকমতো কায়িক পরিশ্রম করতে পারে, অসুখ বিসুখ কম হয় সে ব্যক্তিকে স্বাস্থ্যবান বলা যায়। স্বাস্থ্যবান ব্যক্তি ঠিকমতো হাঁটা চলা করতে পারে, স্বাভাবিক কাজকর্ম করতে পারে। তাই স্বাস্থ্যবান হতে হলে স্বাস্থ্যের প্রতি যত্নবান হতে হবে এবং স্বাস্থ্য ভাল রাখার উপায়গুলো মনে রাখতে হবে।

স্বাস্থ্য ভাল রাখার উপায়

স্বাস্থ্য ভালো রাখতে হলে আমাদের নিম্নোক্ত বিষয়ের প্রতি লক্ষ রাখতে হবে -

১) নিরাপদ পানি পান করতে হবে।

২) পানীয় জল নিরাপদভাবে সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করতে হবে।

৩) কাঁচা ফলমূল খাওয়ার আগে ও শাক - সবজি রান্নার আগে নিরাপদ পানি দিয়ে ধুতে হবে।

৪) খাবার সবসময় ঢেকে রাখতে হবে যেন মাছি বা পোকামাকড় বসতে না পারে।

৫) খাওয়ার পূর্বে ও মলত্যাগের পরে সাবান দিয়ে দুহাত ভালো করে ধুতে হবে।

৬) স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা ব্যবহার করা উচিত, যাতে মলমূত্র যেখানে সেখানে না ছড়ায়।

৭) স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা সবসময় পরিষ্কার - পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।

৮) প্রতিদিন হালকা ব্যায়াম করা।

৯) দিনে দুবার দাঁত ব্রাশ করতে হবে।

১০) প্রতিদিন সুষম খাবার খেতে হবে।

১১) সবসময় হাত ও পায়ের নখ ছোট রাখতে হবে।

১২) সংরক্ষিত খাবার ভালোভাবে গরম করে খেতে হবে।

১৩) বয়স অনুসারে ৬ - ৯ ঘন্টা ঘুমাতে হবে।

১৪) পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিতে হবে।

১৫) সকালে, বিকালে ও রাতে নিরাপদ পানি দিয়ে চোখ ধুতে হবে।

১৬) ব্যবহৃত থালা বাসন পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুতে হবে।

১৭) ব্যক্তিগতভাবে পরিষ্কার - পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে।

১৮) নলকূপের চারপাশ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার প্রয়োজনীয়তা

মানুষের সব থেকে বড় সম্পদ হচ্ছে তার স্বাস্থ্য। সুস্বাস্থ্যের অধিকারী যারা তারাই জীবনে উন্নতি করতে পারে। কিন্ত স্বাস্থ্য ভাল না থাকলে পরিশ্রম করা যায় না। অথচ পরিশ্রমই হচ্ছে সাফল্যের চাবিকাঠি। আমাদের শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্যের ওপর নির্ভর করে।

মানসিক প্রশান্তি না থাকলে শারীরিক স্বাস্থ্য বজায় রাখা কঠিন। কাজেই যতদূর সম্ভব টেনশন মুক্ত থাকতে হবে। সুস্থ ব্যক্তিরা কাজের চাপ সহজে নিতে পারে। সহজে ক্লান্ত হয় না।

কাজেই সুস্থ ও সুন্দর জীবনের জন্য প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় এমন সব খাদ্য রাখতে হবে যা ছয় ধরনের পুষ্টি উপাদান সমৃদ্ধ। কারণ অপুষ্টিকর খাদ্য শরীরের গঠন ব্যাহত করে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমায়। এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে।

আবার সঠিক খাওয়া দাওয়া মানুষকে সুন্দর শরীর উপহার দেয়, একটা আনন্দদায়ক অনুভূতি সৃষ্টি করে এবং কাজ করার প্রেরণা যোগায়। তাই সুস্থ শরীর ও সুন্দর জীবনের জন্য স্বাস্থ্যের প্রতি যত্নবান এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। আসুন সুস্থ থাকি সুন্দর জীবন গড়ি।

আসমা আক্তার শান্তা-এর আরও প্রবন্ধ পড়ুন

মন্তব্য(০)
উত্তর(০)

মন্তব্য ও উত্তর লিখতে অনুগ্রহ করে লগইন করুন!!


আরও প্রবন্ধ পড়ুন






© ২০১৬ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত LearnArticle.com